More
    Home অপরাধ মির্জাপুরে নকল কেমিক্যাল কোং কারখানা সিলগালা করল ভ্রাম্যমাণ আদালত

    মির্জাপুরে নকল কেমিক্যাল কোং কারখানা সিলগালা করল ভ্রাম্যমাণ আদালত

    মোঃ রুবেল মিয়া, মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধিঃ আমরা শুধু পত্র-পত্রিকার মাধ্যমে জানতাম ও টিভিতে দেখিতাম যে ঢাকার চকবাজারেই বেশীর ভাগ দেশী বিদেশী নকল ও ভেজাল পণ্য উৎপাদন করা হত এবং বিপুল পরিমান অর্থ জরিমানা ও ব্যাবসায়ীকে আটক করা হয়ে থাকে। তারই ধারাবাহিকতায় টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে এই প্রথম কোন ব্যাক্তি এক সাথে অনেকগুলো নকল অনুমোদনহীন পণ্য উৎপাদন করার কারখানা তৈরী করেছিল।

    টাঙ্গাইল র‌্যাব-১২ সিপিসি-৩ এর কোম্পানি কমান্ডার ও সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. রওশন আলী জানান,, মির্জাপুর উপজেলার পৌরসভার বংশাই রোড স্যালুঘাট এলাকায় ফতেপুর ইউনিয়নের থলাপাড়া গ্রামের মো. সিরাজের বড় ছেলে মো. তোফাজ্জল হোসেন (৬৫) নামে এক ব্যক্তি মেসার্স শাহিনুর কেমিক্যাল কোং নাম দিয়ে দেশী বিদেশী বিভিন্ন নামী-দামী কোম্পানির নকল কেমিক্যাল তৈরি করে দীর্ঘ দিন ধরে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছিল।

    কারখানায় তৈরি করা বিভিন্ন কেমিক্যালের গন্ধে এলাকার পরিবেশ বিপর্যয় হয়ে পড়েছে। এই নকল কেমিক্যাল তৈরি করে মির্জাপুর, টাঙ্গাইল, জামালপুর, শেরপুর, কালিয়াকৈর, গাজীপুর, সাভার, মানিকগঞ্জসহ বিভিন্ন জেলায় সাপ্লাই দিয়ে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। কেমিক্যালের মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন দেশী বিদেশী কোম্পানির নামে ফিনাইল, টাইলস ক্লিনার, টয়লেট ক্লিনার, ফ্লোর ক্লিনার, গ্লাস ক্লিনার, পুটিং, ডিটারজেন্ট পাউডার, পাইপ ক্লিনার, ব্লিচিং পাউডার, পারফিউম ফিনাইল, ১০০০ মিলি ড্যামক্রাষ্ট, ৫০০ মিলি টাইলস ক্লিনার এবং ৭৫০ মিলি টয়লেট ক্লিনারসহ বিভিন্ন কেমিক্যাল পণ্য সিলগালা করে দেওয়া হয়।

    এদিকে র‌্যাব-১২ সিপিসি ৩ এর সদস্য সঞ্জয় ও শামসুল আলম জানিয়েছেন গোপন সংবাদ পেয়ে সোমবার টাঙ্গাইল র‌্যাব-১২ সিপিসি-৩ এর কোম্পানি কমান্ডার ও সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. রওশন আলী এবং মির্জাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবদুল মালেক মোস্তাকিমের নেতৃত্বে বেলা সারে এগারটার দিকে কারখানায় অভিযান চালানো হয়। অভিযানের সময় বিপুল পরিমাণ নকল কেমিক্যাল পণ্য ও যন্ত্রপাতি উদ্ধার করা হয়। এ সময় কারখানার মালিক তোফাজ্জল হোসেনকে গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তিনি কারখানায় তৈরি বিভিন্ন কোম্পানির কেমিক্যাল তৈরির বৈধ কোন কাগজপত্র ও পৌরসভার ট্রেড লাইসেন্স দেখাতে পারেনি। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবদুল মালেক মোস্তকিম তাকে তিন লাখ টাকা জরিমানা ও এক বছরের জেল দিয়ে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছেন। এছাড়া কারখানাকে সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে।

    এ ব্যাপারে ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবদুল মালেক মোস্তাকিম বলেন, উপজেলা সদর ও পৌরসভার মত একটি গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় অবৈধ কেমিক্যাল কারখানা গড়ে উঠায় এলাকার পরিবেশ হুমকির মুখে পড়েছে। তাই সোমবার র‌্যাবের সহযোগিতায় অভিযানে কারখানার মালিককে গ্রেফতার করে তিন লাখ টাকা জরিমানা ও এক বছরের কারাদণ্ড দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।

    Most Popular

    সিনেমা-নাটকে বিয়ের দৃশ্যে ‘কবুল’ উচ্চারণে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে নোটিশ

    ঢাকা, ২৯ অক্টোবর- দেশের সিনেমা-নাটকে বিয়ের দৃশ্য ধারণ করার সময় ‘কবুল’ শব্দ উচ্চারণে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ সরকারের সংশ্লিষ্টদের কাছে লিগ্যাল নোটিশ...

    আমি সেই কবিকে খুঁজছি

    সলিমুল্লাহ্ আমি সেই কবিকে খুঁজছি, যার কবিতার ছন্দে, বন্ধ হবে সব স্বৈরাচারের নিয়ম কানুন শৃঙ্খল। আমি সেই কবিকে খুঁজছি, যার ক্ষুরধার লিখনি খড়গহস্ত হয়ে দাঁড়াবে শোষকের মুখোমুখি। আমি সেই কবিকে খুঁজছি, যার কবিতার পংক্তিতে...

    আশাশুনিতে অডিটোরিয়ামের ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধন

    আহসান উল্লাহ বাবলু সাতক্ষীরা জেলা প্রতিনিধিঃ আশাশুনিতে পাঁচশত আসন বিশিষ্ট অডিটোরিয়ামের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা পরিষদ চত্বরে এ ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করেন...

    নাচোলে প্রতিবন্ধী, ক্যান্সার, কিডনী রোগীদের মাঝে চেয়ার ও চেক প্রদান

    মোঃ নাসিম,নাচোল, চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধিঃ চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের মাঝে সহায়ক উপকরণ, ক্যান্সার কিডনী লিভার সিরোসিস স্ট্রোকে প্যারালাইজড ও জন্মগত হৃদরোগ ও থালাসেমিয়া রোগীদের চেক...