More
    Home জাতীয় মাদ্রাসায় শিক্ষার্থী নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল, দুই শিক্ষকসহ আটক ৪ -Deshebideshe

    মাদ্রাসায় শিক্ষার্থী নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল, দুই শিক্ষকসহ আটক ৪ -Deshebideshe


    ঢাকা, ১৫ সেপ্টেম্বর – সাভারের আশুলিয়ার একটি মাদ্রাসায় দুই শিশু শিক্ষার্থীকে প্রকাশ্যে হাত-পা বেঁধে নিষ্ঠুর কায়দায় নির্যাতনের অভিযোগে অভিযুক্ত শিক্ষক হাফেজ ইব্রাহিম মিয়া ও হাফেজ ওবায়দুল্লাহসহ চারজনকে আটক করেছে পুলিশ। গতকাল সোমবার রাতে শ্রীপুরের নতুননগর মদনেরটেক এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।

    পুলিশ জানায়, গত ১১ সেপ্টেম্বর ওই এলাকার জাবালে নূর নামের মাদ্রাসায় শিশু নির্যাতনের এ ঘটনা ঘটে। দেশের একটি টেলিভিশন চ্যানেলে এ সংবাদ প্রচারের পর তোলপাড় সৃষ্টি হয়। প্রশাসন নড়েচড়ে বসলে গা ঢাকা দেন ওই মাদ্রাসার শিক্ষকরা।

    ভিডিওতে দেখা যায়, মাদ্রাসার অন্যান্য শিক্ষার্থীদের সামনেই শিক্ষক ইব্রাহিম মিয়া (৩৩) শিক্ষার্থী রাকিব হোসেনকে (৯) হাত-পা বেঁধে নির্যাতন করছেন। এ সময় পাশেই দেখা যায় হাত-পা বাঁধা আতঙ্কিত মাহফুজুর রহমান নামের আরেক শিক্ষার্থীকে।

    নির্যাতনে দুই শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে পড়লে খবর দেওয়া হয় তাদের পরিবারকে। এদের মধ্যে শিশু রাকিব হোসেনকে গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে তার পরিবার গ্রামের বাড়ি নিয়ে টাঙ্গাইলের একটি হাসপাতালে ভর্তি করে। নির্মম শারীরিক নির্যাতনে শিশুটি এখন মানসিকভাবে আতঙ্কিত ভারসাম্যহীন বলে জানিয়েছে তার পরিবার।

    আরও পড়ুন : ছাত্রদলে অসন্তোষ: কমিটি গঠনে অবৈধ লেনদেন ও পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ 

    এদিকে, সোমবার নিবিড় পর্যবেক্ষণ ক্যামেরায় ধারণ করা ওই দুই শিশু শিক্ষার্থীর ওপর নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। দেশের একটি টেলিভিশন চ্যানেলে এ বিষয়ে সংবাদ প্রচারের পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পুলিশ। এ ঘটনায় সোমবার রাতে অভিযান চালিয়ে শিক্ষক হাফেজ ইব্রাহিম মিয়া ও হাফেজ ওবায়দুল্লাহসহ চারজনকে আটক করে পুলিশ।

    এলাকাবাসী জানায়,গত দুই বছর আগে আশুলিয়ার শ্রীপুরের নতুননগর মদনেরটেক এলাকায় জাবালে নুর মাদ্রাসা চালু করেন আব্দুল জব্বার নামের স্থানীয় এক বাসিন্দা। ওই মাদ্রাসায় আগে ২’শ শিক্ষার্থী থাকলেও নির্যাতনের কারণে একে একে মাদ্রাসা ছেড়ে যান শিক্ষার্থীরা। মাত্র দুজন শিক্ষকের তত্ত্বাবধানে বর্তমানে থাকা এখন ১৪ শিক্ষার্থীর মধ্যে নির্যাতনের শিকার দুই শিশুকেও ওই মাদ্রাসা থেকে ছাড়িয়ে নিয়ে গেছেন অভিভাবকরা।

    এ ব্যাপারে আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক মহি উদ্দিন জানান, শিশু শিক্ষার্থীকে নির্যাতনের অভিযোগের সত্যতা মিলেছে। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশে মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।

    তিনি জানান, মাদ্রাসায় শিশু নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর ক্ষোভে ফুঁসে ওঠেন এলাকার জনগণ। রাতেই তারা ওই দুই শিক্ষককে ধরে উত্তমমধ্যম দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেন।

    এ ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন আশুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম কামরুজ্জামান।

    সুত্র : নতুন সময়
    এন এ/ ১৫ সেপ্টেম্বর



    Most Popular

    উত্তরবঙ্গে সঙ্গে ঢাকার ট্রেন চলাচল বন্ধ

    গাজীপুর, ২৮ অক্টোবর- গাজীপুরে ঢাকাগামী কমিউটার ট্রেনের ইঞ্জিনের তিনটি চাকা লাইনচ্যুত হয়েছে। বুধবার সকাল পৌনে ১১টার দিকে মহানগরীর ধীরাশ্রম রেল স্টেশনের দক্ষিণ...

    ট্রাম্প-বাইডেন ‘ব্যাটলগ্রাউন্ড’ নিয়ন্ত্রণে মরিয়া – DesheBideshe

    নিউইয়র্ক, ২৮ অক্টোবর- মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আর মাত্র ৫ দিন বাকি। শেষ মুহূর্তের এসে ‘ব্যাটলগ্রাউন্ড’ নিয়ন্ত্রণে রাখতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন দুই প্রার্থী ডোনাল্ড...

    আজ বীরশ্রেষ্ঠ সিপাহী হামিদুর রহমান মৃত্যুবার্ষিকী

    এস এ একরাম, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধিঃ মোহাম্মদ হামিদুর রহমান বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশগ্রহণকারী একজন শহীদ মুক্তিযোদ্ধা। সাতজন শ্রেষ্ঠ বীরদের অন্যতম। বাংলাদেশের সর্বোচ্চ সামরিক সম্মান ‘বীরশ্রেষ্ঠ’...

    কুলাউড়া কর্মধায় সৌরবিদ্যুৎ সোলার বিতরণে অনিয়ম

    সেলিম আহমেদ, বিশেষ প্রতিনিধিঃ ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ’ পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে দেশের অসহায় দরিদ্র বিদ্যুৎহীন পরিবারের জন্য বিনামূল্যে সরকার থেকে দেওয়া হচ্ছে সোলার প্যানেল ।...