More
    Home কলাম প্রাচ্যের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় দিবস

    প্রাচ্যের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় দিবস

    আল আমিন ইসলাম নাসিমঃ দেশে প্রাচ্যের অক্সফোর্ড নামে খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় দিবস পহেলা জুলাই । এই ১ জুলাই ১৯২১ খ্রিস্টাব্দের তারিখে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিলো বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী প্রতিষ্ঠান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ।

    অনেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে প্রাণের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আবার অনেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে প্রাচ্যের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় কিংবা স্বপ্নের বিশ্ববিদ্যালয় বলে থাকেন । কেননা এই বিশ্ববিদ্যালয় থেকেই প্রতিনিয়ত স্বপ্ন পূরণ করেছেন বা করে যাচ্ছেন অনেকেই ।

    ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হাত ধরেই এগিয়ে গিয়েছেন নিজের পছন্দের গন্তব্যস্থলে । এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিযুদ্ধ দিয়ে ভর্তি হওয়াও যেন অনেকটা স্বপ্নের মতোই । প্রত্যক বছর লাখো মানুষ এখানে ভর্তি পরীক্ষা দিলেও সিট পায় হাজার পাঁচ কিংবা সাতেক ।

    ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অনেকটা স্বপ্নের মতোই । কেননা প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে উঠে আসা এক ছাত্রও এখানে এসে পাই উচ্চ মানের সুযোগ সুবিধা । হোক তা থাকা, খাওয়া কিংবা পড়া, বাস সুবিধাসহ অনেক কিছুই ।
    এছাড়া বাংলাদেশের ঐতিহাস ও ঐতিহ্যর এক দৃষ্টান্ত স্থাপনকারী বিশ্ববিদ্যালয় যেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ।

    ৫২ এর ভাষা আন্দোলন,৬৬ এর দফা,৬৯ এর গনঅভুথ্যান, ৭০ এর সাধারণ নির্বাচন, ৭১ এর মহান মুক্তিযুদ্ধে সব কিছুতেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় রেখেছে গুরুত্বপূর্ণ অবদান । শুধু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রী নয় , এগিয়ে এসেছিল সাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের দেশ বরেণ্য গবেষক ও শিক্ষকেরাও ।

    তার জন্যে জীবনও দিতে হয় অনেক ছাত্র ছাত্রীসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বুদ্ধিজীবী ও গবেষক শিক্ষকদের ।

    এছাড়া ৭১ এর পরও নানা অনিয়মের বিরুদ্ধে আন্দোলন ও অধিকার আদায়ে রাজপথে তাদের অবস্থান বা তাদের কর্মসূচি সাধারণ মানুষের জন্য এক নিবেদিত প্রাণের ন্যায় । শুধু আন্দোলনের মাধ্যমেই নয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় তার অবদান বিশ্বের সামনে তুলে ধরেছে তাদের মেধা, মননশীলতা ও সততা দ্বারা ।

    প্রতিনিয়ত তারা অবদান রাখছে দেশ বিদেশের শিক্ষা, রাজনীতি, অর্থনীতিসহ নানা সামাজিক কর্মকাণ্ডে । দেশের চাকরি বাজারে প্রায় বড়ো পদ বা স্থান গুলোই তাদের দরবারে নিঃসন্দেহে বলা যায় । পাশাপাশি বিশিষ্ট গবেষক, বুদ্ধিজীবী শিক্ষক ও মেধাবী ছাত্র ছাত্রীদের মিলন মেলা এই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় । ক্যাম্পাসে এসে মোহনার মতো সব যেন এক হয়ে যায় ।

    আগামী ২০২১ সাল আসিলেই শত বর্ষে পদার্পণ করতো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় । প্রতিবছর নানা বর্ণিল সাজে রাঙিয়ে যেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় দিবস পালিত হতো । তবে এবার দৃশ্যপট ভিন্ন হতে চলেছে । নেই কোনো উৎসব , নেই কোনো মিলনমেলা, নেই কোনো বর্ণিল রঙের সাজ ।

    বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাস মূহুর্তের মধ্যেই স্থবির করে দিয়েছে সবাইকে । নেই বিশ্ববিদ্যালয়ে যাওয়ার কোনো সুযোগ, নেই কোনো বিশ্ববিদ্যালয় দিবস পালনের উৎসব । হয়তো আগামীতে আবার একসাথে উৎসব পালন করা যাবে, যখন সুস্থ হবে ঢাকার নগরীসহ পুরো দেশ ও বিশ্ব ।

    লেখক – আল আমিন ইসলাম নাসিম, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগ, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়

    Most Popular

    ‘আমি সুস্থ, আপাতত বিশ্রামে থাকব’, করোনা জয় করে বললেন দিলীপ ঘোষ

    কলকাতা, ২১ অক্টোবর- করোনাকে (Coronavirus) হারিয়ে বাড়ি ফিরলেন রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)। মঙ্গলবার সকালেই হাসপাতাল থেকে ছুটি দেওয়া...

    শিবচর উপজেলার উপ-নির্বাচনে আ.লীগ প্রার্থীর বিজয়

    মাদারীপুর, ২০ অক্টোবর- মাদারীপুর জেলার শিবচর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী আব্দুল লতিফ মোল্লা ১ লাখ ৮৪ হাজার ৬৩৩...

    আইপিএলে টানা দুই সেঞ্চুরিতে ইতিহাস ধাওয়ানের

    আবুধাবি, ২০ অক্টোবর- টানা দু’টি ম্যাচে সেঞ্চুরি৷ আইপিএলের ইতিহাসে প্রথমবার৷ আগের ম্যাচে সেঞ্চুরি করে চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধে দলকে জিতিয়েছিলেন দিল্লি...

    পুঠিয়ায় এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার পরিবারের দাবি পরিকল্পিত হত্যা

    মুস্তাফিজুর পুঠিয়া প্রতিনিধিঃ রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার ভালুকগাছী ইউনিয়নের নওপাড়া গ্রামের একাডেমীর পিছনে ধান ক্ষেতের পার্শ্বে আম বাগান থেকে ওইর বক্স (৫০) নামে দুই পায়ের...