More
    Home সারাদেশ পীরগঞ্জে পাউবো কর্তৃক করতোয়া নদী খননের বৈধ বালু লুটছে প্রভাবশালীরা!

    পীরগঞ্জে পাউবো কর্তৃক করতোয়া নদী খননের বৈধ বালু লুটছে প্রভাবশালীরা!

    পীরগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধি ঃপানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) খননকৃত প্রায় ৪ কোটি টাকা মুল্যের ৭০ লাখসি এফটি বৈধ বালু ইজারার আগেই হরিলুট করছেপীরগঞ্জের প্রভাবশালী কয়েকজন জনপ্রতিনিধি ও রাজনীতিবিদ। উপজেলার দক্ষিণ দুর্গাপুর গ্রামে করতোয়া নদীর খননকৃত ওই বালু দিনেরাতে ড্রাম (বড়) ট্রাকে করে উপজেলা প্রশাসনের বুকের উপর দিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। অপরদিকে উপজেলা প্রশাসন মজুদকৃত বালুর স্থলে

    লোকদেখানো ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে ফিরে আসছে। প্রশাসনের ঢিলেমির কারণে সরকার কোটি কোটি টাকা রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

    রংপুর পাউবো সুত্রে জানা গেছে, পীরগঞ্জের টুকুরিয়া ইউনিয়নে করতোয়া নদীপাড়ের দক্ষিণ দুর্গাপুর ও বিছনা গ্রামে গত শুকনো মওসুমে মেসার্স শেখ কন্সট্রাকশন নদী খনন করে প্রায় ৭০ লাখ সিএফটি বালু নদীপাড়ে স্তুপ করে। ওই
    বালু ইজারার জন্য প্রস্তুতি চলছে। এদিকে বৈধ বালু অবৈধভাবে দখলে নিয়েে বিক্রির জন্য উপজেলা চেয়ারম্যান,এক ভাইস চেয়ারম্যান, উজ্জ্বল নামের এক যুবকের নেতৃত্বে ১৬/১৭ জনের একটি দল উঠেপড়ে লাগে। এতে ইউনিয়নটির
    চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মন্ডল বাঁধা দিলে এক রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে ইউপি চেয়ারম্যানের ভাই আব্দুল মান্নানসহ উভয়পক্ষের ৮ জন আহত হয়।

    পরিস্থিতি বেসামাল হলে গত ৮ এপ্রিল ইউএনও টিএমএ মমিন বিছনা ও দক্ষিণ দুর্পাপুর গ্রামে নদীটির খননকৃত দেড় কি.মি এলাকায় বালু উত্তোলন, খনন না করার জন্য ১৪৪ ধারা জারি করেন। তা এখনও বলবৎ রয়েছে।

    এদিকে পাউবো কর্তৃপক্ষ ওই বালু ইজারায় বিক্রির জন্য রংপুরের জেলা প্রশাসককে ব্যবস্থা নেয়ার চিঠি দিলে ভুমি মন্ত্রনালয়ের কাছে প্রয়োজনীয়
    ব্যস্থা নেয়ার জন্য জেলা প্রশাসক নির্দেশনা চায়। ইজারার প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকলেও ৪ মাস ধরে বালুগুলো হরিলুটে উপজেলার ৩ প্রভাবশালী
    জনপ্রতিনিধি, বেশ কয়েকজন রাজনীতিবিদ এবং উজ্জ্বল গংয়ের লোকজন অধৈর্য্য যহয়ে পড়ে। প্রভাবশালীরা প্রায় সপ্তাহখানেক ধরে দিনেরাতে শতাধিক ড্রাম ট্রাক, মাহেন্দ্রযোগে ধুমছে বালু হরিলুট করছে।

    এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান আতাউর রহমান ইউএনও-এ্যাসিল্যান্ডকে অবগত করলেও তারা দায়সারাগোছের অভিযান করছে বলে জানা গেছে। চেয়ারম্যান আতোয়ার রহমান বলেন, উপজেলা প্রশাসন সবই জানে কিন্তু ব্যবস্থা নেয় না।

    তিনি আরও বলেন, সবাই ম্যানেজ হয়ে বালু হরিলুট করছে। পাউবোর এক কর্মকর্তা নাম না প্রকাশের শর্তে বলেন, নদী খননে ৭০ লাখ সিএফটি বৈধ বালু হয়েছে। প্রতি সিএফটি ৬ টাকা দরেও কেউ ইজারা মুল্যে টেন্ডার দাখিল করলে প্রায় ৪ কোটি টাকা হবে। ওই টাকা পুরোটাই সরকার পাবে। কিন্তু বালুগুলো হরিলুট হচ্ছে। নবাগত ইউএনও মেজবাউল হোসেন বলেন, বালু রক্ষায় এ্যাসিল্যান্ডকে ২ বার ভ্রাম্যমান আদালত করার জন্য পাঠিয়েছি। কিন্তু কাউকে পাওয়া যায়নি। রাতে বালু নিয়ে গেলে আমি কি করবো বলেন, বলে প্রশ্ন ছুড়ে দেন তিনি।

    Most Popular

    ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড, আইনে পরিণত হচ্ছে অধ্যাদেশ

    ঢাকা, ২৫ অক্টোবর- ধর্ষণের সাজা মৃত্যুদণ্ড করে জারি করা অধ্যাদেশেকে আইনে রূপ দিতে ‘নারী ও শিশু নির্যাতন দমন (সংশোধন) আইন, ২০২০’ এর খসড়ার...

    কিশোরগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধাকে ভূয়া নানা বানিয়ে পোষ্য কোটায় চাকুরী সহকারী শিক্ষিকার

    মোঃ লাতিফুল আজম, কিশোরগঞ্জ নীলফামারী প্রতিনিধি: নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজলোয় তথ্য গোপন করে প্রতিবেশী বীর মুক্তিযোদ্ধাকে নানা বানিয়ে ভূয়া কাগজপত্র তৈরি করে নাতনির পোষ্য কোটায়...

    নাটোরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে কারেন্ট জাল ও জাটকা ইলিশ জব্দ

    নাটোর, ২৫ অক্টোবর- নাটোর সদর উপজেলার তেবাড়িয়া হাট থেকে ৭০ কেজি জাটকা ও ১০ হাজার মিটার অবৈধ কারেন্ট জাল জব্দ করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। একই...

    মেয়ে-জামাইকে নিয়োগ, যা বললেন রাবি উপাচার্য

    ঢাকা, ২৫ অক্টোবর- রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও প্রশাসনের অনিয়ম নিয়ে ইউজিসির তদন্ত প্রতিবেদন একপেশে ও পক্ষপাতমূলক বলে দাবি করেছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক...