More
    Home কলাম করোনা কালীন জাতীয় জীবনে স্থায়ী প্রভাব রাখার মতো দূটি ঘটনার উপৎত্তিস্থল কক্সবাজার

    করোনা কালীন জাতীয় জীবনে স্থায়ী প্রভাব রাখার মতো দূটি ঘটনার উপৎত্তিস্থল কক্সবাজার

    সিকদার গিয়াসউদিদন : কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার হারবাংয়ের চেয়ারম্যান ও তদীয় চেলাচামুন্ডারা মা ও মেয়েকে রশি দিয়ে বেঁধে লোকালয়ে ঘূরিয়ে ফিরিয়ে জনসমক্ষে যে মধ্যযুগীয় কায়দায় প্রদর্শন ও নির্যাতন করেছে তা অত্যন্ত জঘন্য,গর্হিত ও নিন্দনীয়।সমগ্র দেশ নিন্দায় মূখর।দেশবাসী দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেখতে চায়।

    কক্সবাজারের আইনজীবিরা সম্মিলিতভাবে মা ও মেয়ের জামিনের জন্য যেভাবে এগিয়ে এসেছে-তা সকলেই ভবিষ্যতে যে কোন অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর ক্ষেত্রে সুলক্ষণ বলে মনে করে।বাংলাদেশে অন্যান্য অন্চলের আইনজীবীরাও অদূর ভবিষ্যতে দলীয় চিন্তার বাইরে যে কোন অন্যায় আর মৌলিক অধিকার আদায়ে এগিয়ে এলে বাংলাদেশে জনস্বার্থ বিরোধী যে কোন আইন বাতিল বা রহিত করার ক্ষেত্রে জনসচেতনতা বৃদ্ধি পাওয়ার কথা।

    নির্যাতিত মা ও মেয়ের পক্ষে বাংলাদেশের এটর্ণি জেনারেল মাহবুবে আলমকে কথা বলতে দেখা গেলেও কক্সবাজারের সাংসদদের কোন বক্তব্য দেখা যায়নি বলে অনেককে বলতে দেখা যায়।

    কয়েকযুগ ধরে দেশের শীর্ষ নেতৃত্বে নারীদের অবস্থান নিশ্চিত হলেও সমগ্র দেশে পুরুষ শাসিত সমাজব্যবস্থার আদৌ কোন পরিবর্তন হয়েছে কি? জনগনের সামগ্রিক স্বার্বভৌম অধিকার অর্জন ব্যতিত তা সম্ভব কি? সংসদের স্বার্বভৌমত্বের কথা শুনা গেলেও জনগনের স্বার্বভৌত্বের কথা শুনা যায় কি?

    ইতিপুর্বে অবসরপ্রাপ্ত মেঝর সিনহা হত্যাকাণ্ডকে কেন্দ্র করে টেকনাফ থানার ও সি প্রদীপ কুমার,লিয়াকত ও নন্দ দুলালের গ্রেফতারকে কেন্দ্র করে কক্সবাজারের জনজীবন সহ সমগ্র দেশে স্বস্থির নি:শ্বাস বইতে দেখা যায়। RAB পরিচালিত কর্মকান্ড সমগ্র দেশ ও জাতি গভীর উৎসুক নিয়ে নজর রাখছেন।

    অনেককে সিনহা হত্যাকাণ্ড নিয়ে ন্যায়বিচার আদৌ পাওয়া যাবে কিনা প্রকাশ্যে বলতে দেখা যায়।অতীতের অনেক ঘটনার মতো এটিও একদিন হাওয়ায় মিলিয়ে যাবে বলে অনেককে সন্দেহ প্রকাশ করতে ও বলতে দেখা গেছে।
    তাই সামাজিক ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার জন্য পুলিশ, র্যাব,সেনাবাহিনী,আইন ও বিচার বিভাগসহ রাষ্ট্রের সকল অরগানগুলোকে একত্রে এগিয়ে আসতে হবে।

    দূবৃত্তায়ন,দূর্ণীতি,মাদকমুক্ত রাষ্ট্র ও সমাজ গঠনের ক্ষেত্রে প্রদীপ কুমার,লিয়াকত ও নন্দদুলালদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান করা গেলে তা রাষ্ট্রের ও সমাজের সকল ক্ষেত্রে প্রভাব ফেলবে।’অর্থ ও ক্ষমতা কারো চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত নয়’-এজাতীয় প্রবাদগুলো আবহ তৈরীতে ভূমিকা রাখবে।

    জনস্বার্থে জনগনের স্বার্বভৌম অধিকারের বিষয়টি তাই যে কোন রাজনৈতিক দল তথা সরকারী ও বিরোধী দলগুলোর জন্য খূবই গুরুত্বপূর্ণ।দোষারূপের সংস্কৃতি বর্জন সাইলেন্ট মেঝোরিটি জনগনের কাম্য।গনতান্ত্রিক আচরনের ও সকল ক্ষেত্রে শিষ্টাচারের বিকাশ ব্যতীত অন্য কোন বিকল্প নেই।

    লেখক, গিয়াস উদ্দিন, ২৪’শে আগষ্ট,২০২০ লাস ভেগাস, নেভাদা। ইউ এস এ।

    Most Popular

    শান্তিপূর্ণ ভাবে রাজাপালং ৯নং ওয়ার্ডের নির্বাচন সম্পন্ন-হেলাল বিজয়ী

    মোঃ শহিদ উখিয়া : কক্সবাজারের উখিয়ায় রাজাপালং ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের উপ-নির্বাচন শান্তিপূর্ণ ভাবে সম্পন্ন হয়েছে। ২০ অক্টোবর (মঙ্গলবার) সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত...

    শিবচর উপজেলা পরিষদের উপনির্বাচনে বিএনপির ফলাফল প্রত্যাখান,পুনরায় ভোট দাবী

    নাজমুল মোড়ল, মাদারীপুর প্রতিনিধিঃ মাদারীপুরের শিবচর উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনের বিএনপি প্রার্থী চৌধুরী নাদিরা আক্তার ফলাফল প্রত্যাখান করেছেন। একই সাথে পুনরায় নির্বাচনের মাধ্যমে সুষ্ঠু ভোট...

    শৈলকুপায় ৫’শত গ্রাম গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

    সুলতান আল একরাম,ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধিঃ ৫’শত গ্রাম গাঁজাসহ ঝিনাইদহের শৈলকুপায় মিঠু শেখ (৪০) নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে থানা পুলিশ। মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর)...

    দৌলতখানে পৌর নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দুই মেয়র প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ আহত-১০

    মোঃ ছিদ্দিক ভোলা প্রতিনিধি : ভোলার দৌলতখানে পৌর নির্বাচনের প্রচারনাকে কেন্দ্র করে দুই মেয়র প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ, ইটপাটকেল নিক্ষেপ, দাওয়া পাল্টা...