More
    Home Lead News 2 এবার ৮ম শ্রেণী পর্যন্ত আসছে পাঠ্যসূচিতে পরিবর্তন।

    এবার ৮ম শ্রেণী পর্যন্ত আসছে পাঠ্যসূচিতে পরিবর্তন।

    প্রা’ণঘা’তী করোনাভা’ইরাসের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে দেশে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। ফলে ব্যাহত হচ্ছে ক্লাস-পরীক্ষা। এ অবস্থায় শিক্ষাজট সৃষ্টির আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। ইতিমধ্যে স্নাতক পর্যায়ে অন্তত দুই বছরের সেশনজটের আশঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

    করোনার এ পরিস্থিতিতে বিভিন্ন দেশে পরীক্ষা ছাড়াই পাসের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের একাধিক রাজ্যেও এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। আবার বিভিন্ন দেশে সিলেবাস কমিয়ে সীমিত পরিসরে শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করেছে।

    করোনার কারণে গত ১৭ মার্চ থেকে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। ৩১ আগস্ট পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। আবার কবে খুলবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, খুললেও অল্প সময়ে কিভাবে শেষ করা হবে সিলেবাস এখন সেসব নিয়ে চলছে জল্পনা কল্পনা।

    জানা গেছে, যদি সেপ্টেম্বর থেকে নভেম্বরের মধ্যেও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলে, তবে বিভিন্ন বিষয়বস্তু বাদ দিয়ে সংক্ষিপ্ত পাঠ্যসূচিতে (সিলেবাস) এ বছরের পড়াশোনা শেষ করার চিন্তাভাবনা করছে সরকার। এ জন্য প্রাথমিক থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত তিন ধরনের বিকল্প পাঠ্যসূচি প্রণয়ন করা হচ্ছে। আর পরীক্ষার বিষয়ে বিভিন্ন ধরনের প্রস্তাব আলোচনায় থাকলেও তা কবে এবং কীভাবে হবে, নাকি পরীক্ষা হবে না, সে বিষয়ে এখনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি।

    জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডগুলোর দায়িত্বশীল একাধিক কর্মকর্তা দেশের একটি জাতীয় দৈনিক পত্রিকার প্রিন্ট ভার্সনকে জানিয়েছেন, করোনার কারণে বন্ধ থাকা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সেপ্টেম্বরে খুললে তুলনামূলক একটু বড় পাঠ্যসূচি হবে। এ ক্ষেত্রে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত ক্লাসের জন্য ৭০ থেকে ৭৩ কার্যদিবস পাওয়া যাবে। আর অক্টোবরে খুললে আরেকটু সংক্ষিপ্ত পাঠ্যসূচি হবে। এই সময়ে ৫০ কার্যদিবসে ক্লাস করা যাবে। নভেম্বরে খুললে একেবারেই সংক্ষিপ্ত পাঠ্যসূচি হবে। তখন ক্লাসের জন্য ৩০ কার্যদিবস পাওয়া যাবে।

    মূলত করোনায় বন্ধের আগে বছরের প্রথম আড়াই মাসে যতটুকু পাঠ্যসূচি শেষ করা হয়েছিল, সেটি বাদ দিয়ে পরবর্তী পাঠ্যসূচি কাটছাঁট করা হচ্ছে। নভেম্বরে খুললে যে পাঠ্যসূচি হচ্ছে, সেখানে বর্তমান শ্রেণি এবং ওপরের শ্রেণির পাঠ্যসূচিতে পুনরাবৃত্তি থাকা বিষয়গুলো বাদ দিয়ে সবচেয়ে জরুরি বিষয়বস্তু থাকবে।

    নবম-দশম শ্রেণি এবং উচ্চমাধ্যমিকের পাঠ্যসূচি কাটছাঁট হচ্ছে কি না? এমন প্রশ্নের জবাবে এনসিটিবির একজন কর্মকর্তা ওই গণমাধ্যমকে বলেন, প্রথমত নবম ও দশম শ্রেণির বই একই। ফলে নবম শ্রেণিতে সব পাঠ্যসূচি শেষ না হলেও দশম শ্রেণিতে গিয়ে তা শেষ করার সুযোগ আছে। আর এই স্তরটি শেষ করে একেবারে নতুন আরেকটি স্তরে (উচ্চমাধ্যমিক) যায় শিক্ষার্থীরা। তাই এখানে হঠাৎ করেই পাঠ্যসূচি কমিয়ে দিলে সমস্যা হওয়ার আশঙ্কা আছে। একই কারণে উচ্চমাধ্যমিকেও পাঠ্যসূচি সংক্ষিপ্ত হচ্ছে না। তাই তারা কেবল অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত পাঠ্যসূচি সংক্ষিপ্ত করছেন।

    Most Popular

    পীরগঞ্জে শারদীয় দূর্গা উৎসবের শুভ উদ্বোধন করলেন – স্পীকার ড. শিরিন শারমিন চৌধুরী

    মাহমুদুল হাসান পীরগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধি ঃ বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি বলেছেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বে সকলের সহযোগিতায়...

    মুন্সিগঞ্জ জেলা গজারিয়া উপজেলায় ৩০মিনিট ৩টি সড়ক দুর্ঘটনা

    শেখ মো:সোহেল রানা মুন্সিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি : গতকাল ২১ই অক্টোবর মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া উপজেলায় ৩০ মিনিটের ব্যবধানে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে পৃথক ৩টি সড়ক দূর্ঘটনায় ২২ জন...

    দেবী দূর্গার আগমণে সবখানে ছড়িয়ে পড়ুক শান্তি-সুখের বারতা-ড. শিপক নাথ

    জগজ্জননী দেবী দূর্গার আগমণে আমাদের সকল দুঃখ-কষ্ট-হিংসা-দ্বেষ দুর হোক। পরাজিত হোক সকল অশুভ শক্তি। সকলের দেহ-মনে ছড়িয়ে পড়ুক পবিত্রতা। সবখানে ছড়িয়ে পড়ুক শান্তি-সুখের বারতা।...

    নিয়ামতপুরে কুকুর কামড়ে একজনের মৃত্যু কবিরাজের ভূল চিকিৎসায় মৃত্যু, দাবী বাবার

    নিয়ামতপুর (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ নওগাঁর নিয়ামতপুরে কুকুর কামড়ে একজনের মৃত্যু। কবিরাজের ভুল চিকিৎসায় মৃত্যু দাবী বাবার। জানা যায়, উপজেলার শ্রীমন্তপুর ইউনিয়নের দারাজপুর গ্রামের জয়নাল আবেদীন...